শনিবার, ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ১৪ ফাল্গুন ১৪২৭ , ১৫ রজব ১৪৪২

অর্থ ও বাণিজ্য

ছুটিতে সপ্তাহে দুইদিন চলবে সঞ্চয়পত্রের লেনদেন কার্যক্রম

নিউজজি প্রতিবেদক ২৮ এপ্রিল , ২০২০, ২২:৩৩:৩১

  • ছুটিতে সপ্তাহে দুইদিন চলবে সঞ্চয়পত্রের লেনদেন কার্যক্রম

ঢাকা : করোনার প্রাদুর্ভাব ঠেকাতে ঘোষিত সাধারণ ছুটি শুরুর পর থেকেই নতুন করে কেউ আর সঞ্চয়পত্র কিনতে পারছেন না। এমন কি মেয়াদ পরিপূর্ণ হয়ে গেলেও সুদ উত্তোলন কিংবা পুনঃবিনিয়োগও করতে পারছেন না। এতে করে সমস্যায় পড়েছেন অনেক গ্রাহক।

আর এ সমস্যা সামাধনে চলতি সপ্তাহ থেকে সুদ ও আসল উত্তোলনের পাশাপাশি পুনঃবিনিয়োগ ও নতুন সঞ্চয়পত্র কেনার সুযোগ মিলবে। এ জন্য সাধারণ ছুটির মধ্যে প্রতি সপ্তাহের বুধ ও বৃহস্পতিবার সকাল ১০টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত জাতীয় সঞ্চয় অধিদপ্তরের অধীন সব অফিস খোলা থাকবে। গত ২৩শে এপ্রিল এ সংক্রান্ত একটি প্রজ্ঞাপন জারি করেছে জাতীয় সঞ্চয় অধিদপ্তর।

প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, ম্যানুয়াল ও অনলাইন উভয় পদ্ধতিতে ইস্যুকৃত সঞ্চয়পত্রের লেনদেন কার্যক্রম পরিচালনার নিমিত্তে জাতীয় সঞ্চয় অধিদপ্তরের আওতাধীন সকল জেলা সঞ্চয় অফিস, ব্যুরো এবং জাতীয় সঞ্চয় বিশেষ ব্যুরোসমূহ সরকার কর্তৃক ঘোষিত সাধারণ ছুটিকালীন সময়ে সপ্তাহে দুই দিন অর্থাৎ প্রত্যেক বুধবার ও বৃহস্পতিবার সকাল ১০টা হতে দুপুর ১টা পর্যন্ত খোলা রাখার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়েছে।

এতে বলা হয়, জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় থেকে ছুটি সংক্রান্ত সর্বশেষ আদেশের নির্দেশনা অনুসরণে ওই সময়ে কর্মকর্তারা করোনা সংক্রান্ত সতর্কতা ও নিরাপত্তামূলক সার্বিক ব্যবস্থা গ্রহণ করে দায়িত্ব পালন করবেন। জাতীয় সঞ্চয় বিভাগীয় কার্যালয়ের উপ-পরিচালকরা বিষয়টি তদারকি করবেন। উপর্যুক্ত দায়িত্ব পালনের জন্য কর্মকর্তাদের অফিসে যাতায়াতকালে বৈধ পরিচয়পত্র এবং এ আদেশের কপি সঙ্গে রাখতেও বলা হয়েছে।

বাংলাদেশ ব্যাংকের শাখা অফিস, বাণিজ্যিক ব্যাংক, সঞ্চয় অধিদফতরের অফিস এবং ডাকঘরের মাধ্যমে সঞ্চয়পত্র কেনা যায়।

আগে সঞ্চয় অধিদপ্তর থেকে ম্যানুয়াল পদ্ধতিতে সঞ্চয় কুপন ইস্যু করে ব্যাংকগুলোতে পাঠানো হতো। সেই কুপনের আলোকে সুদ ও আসল পরিশোধসহ সব হতো অধিদপ্তরের বিভিন্ন অফিসের মাধ্যমে। তবে গত বছরের এপ্রিল থেকে অনলাইন ম্যানেজমেন্ট পদ্ধতি চালুর পর থেকে সঞ্চয়পত্র একটি নির্দিষ্ট সফটওয়্যারের মাধ্যমে পরিচালিত হচ্ছে। সঞ্চয় অধিদপ্তরের অফিস বন্ধ থাকলে সঞ্চয়পত্র বিক্রি বন্ধ থাকে। আবার মুনাফা ও আসল পরিশোধে নানা জটিলতা তৈরি হয়। এ অবস্থায় সাধারণ ছুটির মধ্যেও সীমিত সময়ের জন্য সঞ্চয় অধিদপ্তরের সব অফিস খোলা রাখার সিদ্ধান্ত হয়েছে।

এ বিষয়ে সঞ্চয় অধিদপ্তরের মহাপরিচালক শামসুন্নাহার বেগম বলেন, এখন থেকে প্রতি সপ্তাহের বুধ ও বৃহস্পতিবার সঞ্চয় অধিদপ্তরের অধীন সব জেলা সঞ্চয় অফিস ও ব্যুরো খোলা থাকবে। অফিস চলাকালীন সময়ে সঞ্চয়পত্র রিলেটেড অফলাইন-অনলাইন সব ধরনের কার্যক্রম চলবে।

পাঠকের মন্তব্য

লগইন করুন

ইউজার নেম / ইমেইল
পাসওয়ার্ড
নতুন একাউন্ট রেজিস্ট্রেশন করতে এখানে ক্লিক করুন
copyright © 2021 newsg24.com | A G-Series Company
Developed by Creativeers