রবিবার, ১৭ ডিসেম্বর ২০১৭, , ২৭ রবিউল আউয়াল ১৪৩৯

সাহিত্য

শ্রীলঙ্কান লেখক অনুক পেলেন ডিএসসি পুরস্কার

ফারুক হোসেন শিহাব ১৯ নভেম্বর , ২০১৭, ১৪:১৫:১০

  • শ্রীলঙ্কান লেখক অনুক পেলেন ডিএসসি পুরস্কার

বাংলা একাডেমিতে অনুষ্ঠিত ‘ঢাকা লিট ফেস্ট’-এর সপ্তম আসর শেষ হলো ১৮ নভেম্বর শনিবার সন্ধ্যায়। জমকালো এ সাহিত্য সম্মেলনের সমাপনী টানলেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত। সমাপনী অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক শামসুজ্জামান খান, ফেস্টের আয়োজক তিন পরিচালক কাজী আনিস, আহসান আকবর ও সাদাফ সায। তিন দিনের এ আয়োজনে ২৪টি দেশের দু’শতাধিক কবি, সাহিত্যিক, শিল্পী ও রাজনীতিবিদগণ বিশ্বের সমসাময়িক ইস্যুর পাশাপাশি সাহিত্য, প্রকাশনা, অনুবাদ সাহিত্যের হালহকিকত এবং সাহিত্যে নারী ও শিশুর ভূমিকা নিয়ে মত প্রকাশ করেন।
 
সমাপনী সন্ধ্যায় দক্ষিণ এশিয়া বিষয়ক সাহিত্যের সবচেয়ে সম্মানজনক পুরস্কার ডিএসসি ‘প্রাইজ ফর সাউথ এশিয়ান লিটারেচার’ প্রদান করা হয়। এবার তাৎর্যবহ এ পুরস্কার লাভ করেছেন শ্রীলঙ্কান লেখক অনুক অরুদপ্রগাসম। তিনি দ্য ‘স্টোরি অফ অ্যা ব্রিফ ম্যারেজ’ উপন্যাসের জন্য এ পুরস্কারে ভূষিত হন। অনুষ্ঠানে আবুল মাল আবদুল মুহিত ডিএসসি পুরস্কারের সম্মাননা অর্থ ২৫ হাজার ডলার তুলে শ্রীলঙ্কান লেখকের হাতে। 
এ সময় মঞ্চে ছিলেন ডিএসসি সাহিত্য পুরস্কারের প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক সারিনা নারুলা ও প্রদানকৃত পুরস্কারের জুরিবোর্ড সদস্য রিতু মেনন, ভ্যালেন্টাইন কুনিংহাম, স্টিভেন বারনেস্টাইন, ইয়াসমিন আলী ভাই এবং সিনেথ ওয়াল্টার পারেরা উপস্থিত ছিলেন।  
 
২০১০ সাল থেকে ডিএসসি সাহিত্য পুরস্কার প্রদান করা হচ্ছে। এ পুরস্কারের প্রচলন করেন ডিএসসি-এর প্রতিষ্ঠাতা সারিনা নারুলা। মূলত দক্ষিণ এশিয়া নিয়ে যে কোনো ধরনের লেখা এ পুরস্কারের জন্য মনোনীত হয়ে থাকে। অর্থমন্ত্রী তার বক্তব্যে বলেন, এবছরের লিট ফেস্ট এখন পর্যন্ত সবচেয়ে সেরা আয়োজন বলে আমার কাছে মনে হয়। এমন উৎসবই সবার প্রত্যাশা। মান এবং গুণগত বিচারে এটি দেশি-বিদেশি সবারই হৃদয় কেড়েছে। 
শনিবার সকাল ১০টায় আবদুল করিম সাহিত্য বিশারদ মঞ্চে শুরু হয় প্রথম আয়োজন। ওমেন আর্ট অ্যান্ড পলিটিক্স শীর্ষক আলোচনায় বি রোলেটের সঞ্চালনায় অংশ নেন এস্থার ফ্রয়েড, নন্দনা সেন, বিগো চৌল ও সাদাফ সায্। নারীদের আলোচনায় উঠে আসে নারীদের প্রতি অসহিষ্ণুতা এবং তার প্রতিকারে করণীয়।
 
সকালে ভাস্কর নভেরা হলে চলছিল ‘ডিসপ্লেসমেন্ট শীর্ষক আলোচনা’। এতে অংশ নেন লেখক জেস বল, ডেভিড জেলে এবং সঞ্চালনা করেন কথা সাহিত্যিক সর্বরী আহমেদ। বক্তাদের আলোচনায় উদ্বাস্তু জনগোষ্ঠির দুর্দশার কথা ফুটে ওঠে। ‘১৯৭৪ দ্য সাইলেন্ট ইয়ার’ শীর্ষক আলোচনায় উঠে আসে চুয়াত্তরের মনন্ত্বরের কথা। এতে অংশ গর্গ চ্যাটার্জির সঞ্চালনায় অংশ নেন নাওমী হোসেন ও সৈয়দ বদরুল আহসান। 
কবি শামসুর রাহমান অডিটোরিয়ামে ব্লোন টু ইটস বিডস শীর্ষক একটি আলোচনায় অংশ নেন অনুক অরুপ্রাগাজম, ক্যাথরিন ল্যাসি, করণ মহাজন। আলোচনাটি সঞ্চালনা করেন, এলিনর শ্যান্ডলার। এই তরুণ সাহিত্যিকরা সাহিত্য সৃজনে তাদের ব্যক্তিগত অভিজ্ঞতা বর্ণনা করেন। সিজলেজ চ্যাটার অব ড্যামন শীর্ষক আলোচনায় বাংলাদেশের তরুণ লেখক ইখতিসাদ আহমেদের সঙ্গে বসেছিলেন শ্রীলঙ্কার বর্ষিয়ান সাহিত্যিক অশোক ফেরি। আলোচনায় বাংলাদেশ ও শ্রীলঙ্কার সাহিত্যচর্চার বাস্তবতা নিয়ে আলোচনা করেন। 
 
দুপুরে কবি শামসুর রাহমান হলে চলছিল ভাষার রাজনীতি ও ভাষার অর্থনীতি শীর্ষক আলোচনা। দুপুরের পর পর লনে সিরিয়া ওয়ার উইদাউট এন্ড শীর্ষক আলোচনায় বিবিসির সাংবাদিক জাস্টিন রোলেট, সাংবাদিক চার্লস গ্লাস এবং অধ্যাপক আজিম ইব্রাহিম অংশ নেন। সিরিয়ার যুদ্ধ বিষয়ক সংকটের ইতিহাস, পটভূমি এবং ফলাফল নিয়ে আলোচনা করা হয়। এমনি অনেকগুলো সেশনে সাজানো হয় শেষ দিনের আয়োজন। নানা আয়োজনে শিশুদের জন্যও ছিল চার থেকে ৫টি সেশন। অংক শেখা, গল্প বলা, নন্দনা সেনের গল্প বলাসহ আরও কয়েকটি আয়োজন।
সমাপনী অনুষ্ঠানের খানিকটা আগে আব্দুল করিম সাহিত্যবিশারদ হলে ছিল ব্রিটিশ সাহিত্য ম্যাগাজিন গ্রান্টার মোড়ক উন্মোচন। মোড়ক উন্মোচনে ছিলেন গ্রান্টার অনলাইন এডিটর। শেষ বিকেলে লন ছিল সাহিত্যপ্রেমীদের উপস্থিতিতে টইটম্বুর। সেসময় মঞ্চে ছিলেন কবি হেলাল হাফিজ। তিনি এই উৎসবের আয়োজকদের অভিনন্দিত করেন এবং স্বকণ্ঠে স্বরচিত সাতটি কবিতা পাঠ করেন। এর পরই নাইজেরিয়ান সাহিত্যিক বেন ওকরি ও টিল্ডা সুইন্টন নিজেদের লেখা থেকে পাঠ করেন একই মঞ্চে।
 
 
গত বৃহস্পতিবার দু’শতাধিক দেশি-বিদেশি কবি-সাহিত্যিকের প্রাণবন্ত উপস্থিতিতে সকাল সাড়ে ১১টায় বাংলা একাডেমির আব্দুল করিম সাহিত্যবিশারদ মিলনায়তনে সিরিয়ার আরবি ভাষার বিখ্যাত কবি আদোনিস তিন দিনব্যাপী এ ‘ঢাকা লিট ফেস্ট’ এর উদ্বোধন ঘোষণা করেন।
এবারের লিট ফেস্টে বিদেশি অতিথিদের মধ্যে সিরিয়ার আরবি ভাষার কবি আদোনিস, নাইজেরিয়ার সাহিত্যিক বেন ওক্রি, অস্কারজয়ী বৃটিশ অভিনেত্রী টিল্ডা সুইন্টন, মার্কিন সাহিত্যিক লিওনেল শ্রিভার, পদ্মশ্রী পুরস্কারপ্রাপ্ত ভারতীয় কথাসাহিত্যিক নবনীতা দেব সেন, কথাসাহিত্যিক উইলিয়াম ডালরিম্পল, লেখক এস্থার ফ্রয়েডসহ আরও অনেকে উপস্থিত ছিলেন।
 
তিন দিনব্যাপী এ আসরে বিশ্ব সাহিত্য, সংস্কৃতি ও শিল্পের নানা বিষয় নিয়ে আড্ডা, আলোচনা আর বহুমাত্রিক আয়োজনে ৯০টি সেশনে সাজানো হয় তিন দিনব্যাপী এই সাহিত্যাসর। এতে সাহিত্যের বিভিন্ন ধারা, যেমন- গল্প, উপন্যাস, কবিতা, চলচ্চিত্র ও নাটক ছাড়াও রাজনীতি, কূটনীতি, বিজ্ঞান, জঙ্গিবাদ, ধর্ষণ, নারীর প্রতি অসহিষ্ণুতা, এমনকি নাচ, গান, লাঠিখেলা ও শিশুদের পাপেট শো নিয়েও হয়েছে অধিবেশন ও প্রদর্শনী।
 
 
নিউজজি/এসএফ
 

পাঠকের মন্তব্য

লগইন করুন

ইউজার নেম / ইমেইল
পাসওয়ার্ড
নতুন একাউন্ট রেজিস্ট্রেশন করতে এখানে ক্লিক করুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

copyright © 2016 newsg24.com | A G-Series Company
Developed by Creativeers