বৃহস্পতিবার, ৬ মে ২০২১, ২২ বৈশাখ ১৪২৮ , ২৪ রমজান ১৪৪২

দেশ

বগুড়ায় সালিস বৈঠকে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ, আহত ১০

বগুড়া প্রতিনিধি ১৮ এপ্রিল, ২০২১, ১৪:১৭:০১

  • প্রতীকী ছবি

বগুড়া: শেরপুরে সালিস বৈঠকে দু’পক্ষের মধ্যে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এ সময় বসতবাড়িতে হামলা-ভাঙচুর ও লুটপাটও চালানো হয়। সংঘর্ষে উভয়পক্ষের অন্তত দশজন আহত হয়েছে। এর মধ্যে গুরুতর তিনজন স্থানীয় উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সে ও বগুড়ায় শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিক্যাল কলেজ (শজিমেক) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

এ ঘটনায় রোববার (১৮ এপ্রিল) বেলা এগারোটার দিকে শেরপুর থানায় দু’পক্ষই পাল্টাপাল্টি অভিযোগ করেছেন। এর আগে শনিবার (১৭ এপ্রিল) সন্ধ্যারাতে উপজেলার গাড়ীদহ ইউনিয়নের মহিপুর বারইপাড়া গ্রামে বসা শালিসী বৈঠকে এই রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ হয়।

আহতরা হলেন- পৌরশহরের হাজিপুর এলাকার মনছের আলীর ছেলে হেলাল উদ্দিন (৩৫), একই এলাকার নাহিদ হাসান (২৫), জাকারিয়া (২৬), শিপন (২৭), উপজেলার গাড়ীদহ ইউনিয়নের মহিপুর বারইপাড়া গ্রামের কামরুল ইসলাম ডিনারের স্ত্রী রাশেদা বেগম (৪০), ছেলে রাশেদ আহম্মেদ (১৭)। আর বাকি তিনজন প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়েছেন।

পুলিশ, এলাকাবাসী ও থানায় দায়ের করা অভিযোগ থেকে জানা যায়, করতোয়া নদীতে মাছ ধরাকে কেন্দ্র করে গত ১৪ এপ্রিল দুপুরে পৌরশহরের হাজিপুর এলাকার মনছের আলীর সঙ্গে উপজেলার গাড়ীদহ ইউনিয়নের মহিপুর বারইপাড়া গ্রামের কামরুল ইসলাম ও তার ছেলের বাকবিতণ্ডা ও ধস্তাধস্তির ঘটনা ঘটে। পরবর্তীতে ঘটনাটি আপোষ-মীমাংসার জন্য শনিবার সন্ধ্যারাতে মহিপুর বারইপাড়া গ্রামে শালিসী বৈঠক বসে। কিন্তু বৈঠকের শুরুতেই দু’পক্ষের মধ্যে শুরু হয় তুমুল হট্টগোল। একপর্যায়ে ভয়াবহ রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষে উভয়পক্ষের দশজন আহত হন।

এদিকে মহিপুর বারইপাড়া গ্রামের কামরুল ইসলাম ডিনার অভিযোগ করে বলেন, আট থেকে দশটি মোটরসাইকেল যোগে দেশীয় অস্ত্রে সজ্জিত হয়ে হেলাল উদ্দীনের নেতৃত্বে সন্ত্রাসীরা তার বসতবাড়িতে হামলা চালায়। সেইসঙ্গে তার স্ত্রী-ছেলে ও তার লোকজনকে বেধড়ক মারপিট করে আহত করে। এমনকি শয়নকক্ষের বিভিন্ন আসবাবপত্র ভাঙচুর করে আলমারির মধ্যে রক্ষিত গরু বিক্রির এক লাখ সত্তর হাজার টাকা লুটে নিয়ে যায় তারা।

তবে প্রতিপক্ষ মনছের আলীর দাবি, আপোষ-মীমাংসার কথা বলে তাদের ডেকে নিয়ে যাওয়া হয়। এরপর পরিকল্পিতভাতে তাদের ওপর হামলা চালানো হয়। বিশেষ করে ছেলে হেলাল উদ্দীনকে ধারালো অস্ত্রদিয়ে উপর্যুপরি আঘাত করা হয়েছে। বর্তমানে তার অবস্থা আশঙ্কাজনক। বগুড়ার শজিমেক হাসপাতালে মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছেন। এছাড়া হেলাল উদ্দীনের দেড় লাখ টাকা মূল্যের একটি মোটরসাইকেলও ছিনিয়ে নেওয়া হয় বলে অভিযোগ করেন তিনি।

এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে শেরপুর থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) আবুল কালাম আজাদ বলেন, এ ঘটনায় উভয়পক্ষ পাল্টাপাল্টি অভিযোগ দিয়েছে। তদন্তপূর্বক আইন অনুযায়ী প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

নিউজজি/ এসআই

পাঠকের মন্তব্য

লগইন করুন

ইউজার নেম / ইমেইল
পাসওয়ার্ড
নতুন একাউন্ট রেজিস্ট্রেশন করতে এখানে ক্লিক করুন
copyright © 2021 newsg24.com | A G-Series Company
Developed by Creativeers