বুধবার, ১৯ জানুয়ারি ২০২২, ৫ মাঘ ১৪২৮ , ১৪ জুমাদাউস সানি ১৪৪৩

অর্থ ও বাণিজ্য

জমকালো উৎসবে ‘কারি অস্কার’ শিরোপা

নিউজজি প্রতিবেদক ৪ ডিসেম্বর , ২০২১, ২০:২৩:৪৪

235
  • জমকালো উৎসবে লন্ডনে ব্রিটিশ কারি অ্যাওয়ার্ডের ১৭তম বর্ণাঢ্য উৎসবে বিজয়ীদের পুরস্কার প্রদান

ঢাকা: ব্রিটিশ কারি অ্যাওয়ার্ডের ১৭তম বর্ণাঢ্য উৎসব সোমবার (২৯ নভেম্বর) লন্ডনের ব্যাটারসি এভল্যুশন সেন্টারে অনুষ্ঠিত হয়েছে। ব্রিটিশ-বাংলাদেশি উদ্যাক্তাদের হাতেই গড়ে ওঠা কারিশিল্পের উৎসব দুই বছর পরে ফের লন্ডনে জমে ওঠে। জাঁকজমকপূর্ণ উৎসবে ‘কারি অস্কার’ শিরোপা অর্জনে  বিভিন্ন প্রান্তের সেরা রেস্টুরেন্ট প্রতিনিধিরা অংশ নেন।

কারিশিল্পের অস্কার হিসেবে বিশ্বে এই পদকের বেশ সুনাম রয়েছে। পুরস্কার প্রবর্তনের আদি প্রতিষ্ঠাতা ব্রিটিশ-বাংলাদেশি উদ্যোক্তা এনাম আলী এমবিইর উদ্যোগে এবং জাস্ট ইটের সহযোগিতায় উৎসব অনুষ্ঠিত হয়েছে।

উৎসব উপলক্ষে ভিডিও বার্তায় ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন বলেন, দশকের পর দশক নিজেদের তৈরি সুস্বাদু খাবারের জাদুতে আমাদের যারা বিস্মিত ও মোহিত করে চলেছেন, কারিশিল্পের সেইসব প্রতিভাধর শিল্পীর আজ জাতীয় স্বীকৃতি প্রদান উৎসব।

ব্রিটেনের অন্যতম জাতীয় উৎসবকে স্বাগত জানিয়ে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বলেন, দেশের ৫০টির বেশি বড় শহর থেকে ১০ হাজারের বেশি রেস্টুরেন্ট নিয়ে গড়ে উঠেছে এই শিল্প। করোনার প্রকোপ কাটিয়ে আবার সেই শিল্প প্রাণবন্ত হয়ে উঠতে শুরু করেছে।

করোনাভাইরাসে কারণে দুবছর পরে ফের উৎসব হওয়ায় আনন্দ প্রকাশ করে তিনি বলেন, দুই বছর জাতির কঠিনতম দিনগুলোয় দেশের স্বাস্থ্যকর্মীদের নিঃস্বার্থ, নিরলস সেবা ও সাহস যুগিয়েছেন। ঘরবন্দী মানুষের ঘরে খাবার পৌঁছে দিয়ে লাখ লাখ জীবন বাঁচিয়েছেন তারা। 

লন্ডনে আনন্দঘন জাঁকজমকপূর্ণ উৎসবে আমন্ত্রিত অতিথিরা

এজন্য, কারি অ্যাওয়ার্ড শিল্পের সঙ্গে জড়িত সব রেস্টুরেন্ট, শেফ এবং ওয়েটারকে অভিনন্দন জানান ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী। মূলত ব্রিটিশ কারীশিল্পের সিংহভাগের নিয়ন্তা ব্রিটিশ-বাংলাদেশি উদ্যাক্তাদের হাতেই শুরু হয়।

কারিশিল্পের আয়োজক ব্রিটিশ-বাংলাদেশি এনাম আলি এমবিই অনুষ্ঠানে বলেন, আনন্দের কথা হলো—করোনার সেই ভগ্নদশা পেরিয়ে আবারো নতুন উদ্যমে জেগে উঠেছে রেস্টুরেন্ট। রসনাবিলাসী মানুষগুলো ফিরে পেয়েছে তাদের সেই উচ্ছ্বলতা। তাদের অভাবনীয় সমর্থনে আরো দুস্তর পথ পাড়ি দিতে আমরা প্রস্তুত।

লন্ডনে আনন্দঘন জাঁকজমকপূর্ণ উৎসবে ‘কারি অস্কার’ শিরোপা অর্জনে এবারও বিভিন্ন প্রান্তের সেরা রেস্টুরেন্ট প্রতিনিধিরা অংশ নেন। তাদের মধ্যে ছিলেন সেলিব্রিটি ক্রিকেটার আজিম রফিক, লাভ আইল্যান্ড প্রতিযোগী খ্যাত প্রিয়া গোপালদাস ও জনপ্রিয় মডেল ড্যানিয়েল ম্যাসন, সাবেক ‘দ্য অ্যাপ্রেন্টিস’ বিজয়ী সিয়ান গ্যাবিডন, টিভি প্রেজেন্টার মেলিন্ডা মেসেঞ্জার, লিজি কান্ডি, ফেই বারকার, হেইলি স্পার্কস এবং হেলি পামার।

আরো অংশ নেন রেডিও উপস্থাপক জেমস হোয়েল, টেলিভিশন জিপি ড. আমির খান, নির্মাতা ও অভিনেতা মিসতাহ আইলাহ, সঙ্গীতশিল্পী পাত্তি বুলায়ে ও মিস্টার ফ্যাবুলাস, রেস্তোরাঁ সমিতির প্রেসিডেন্ট রবার্ট ওয়ালটন এমবিই, জনপ্রতিনিধি ক্রিস গ্রেলিং ও ফয়সল চৌধুরী, রুপলস ড্র্যাগ রেস ইউকে-এর বাগা চিপজ এবং রিয়েলিটি টিভি উপস্থাপক রবি ম্যাকমোহন। 

কারিশিল্পের আয়োজক ব্রিটিশ-বাংলাদেশি এনাম আলি 

অনুষ্ঠানে ওয়েস্ট মিডল্যান্ড ক্যাটাগরিতে সেরা রেস্টুরেন্টের পুরস্কার তুলে দিতে ভার্চুয়ালি ভারতের মুম্বাই থেকে যুক্ত হন বলিউড তারকা অভিষেক বচ্চন। 

চলতি বছরে বিশ্বনন্দিত এই পুরস্কার পেয়েছে- বেস্ট রেস্টুরেন্ট স্কটল্যান্ড ক্যাটাগরিতে ডিশুম; বেস্ট রেস্টুরেন্ট নর্থ-ইস্টে মুমতাজ রেস্টুরেন্ট এবং নর্থ-ওয়েস্ট আশা’জ; ইস্ট মিডল্যান্ডে মনতাজ নিউ মার্কেট, ওয়েস্টে মিডল্যান্ডে পুশকার রেস্টুরেন্ট, ওয়েলশে পারপল পপাডম, সাউথ ইস্টে শেফ মুমতাজ।

আরো রয়েছে—সাউথ ওয়েস্টে পৃথিবী রেস্টুরেন্ট, লন্ডন সেন্ট্রাল অ্যান্ড সিটিতে বিনারস, আউটার অ্যান্ড সাবার্বে শাম্পান ব্রমলি, বেস্ট নিউকামার ক্যাটাগরিতে মথুরা রেস্টুরেন্ট, বেস্ট টেকঅ্যাওয়ে ক্যাটাগরিতে মালিকস এক্সপ্রেস কিচেন এবং মোস্ট ইনোভেটিভ রেস্টুরেন্ট কনসেপ্ট ক্যাটাগরিতে পুরস্কার জিতে নেয়—খাই খাই ইন্ডিয়ান রেস্টুরেন্ট।

উপস্থাপনা করেন জননন্দিত অভিনেতা ও কমেডিয়ান ওমিড ডিজালিল।

নিউজজি/শানু/নাসি 

পাঠকের মন্তব্য

লগইন করুন

ইউজার নেম / ইমেইল
পাসওয়ার্ড
নতুন একাউন্ট রেজিস্ট্রেশন করতে এখানে ক্লিক করুন