সোমবার, ১৮ অক্টোবর ২০২১, ২ কার্তিক ১৪২৮ , ১০ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

বিনোদন

নিজেকে এক জায়গায় সীমাবদ্ধ রাখতে চাই না : বুবলী

রুহুল আমিন ভূঁইয়া  সেপ্টেম্বর ২৮, ২০২১, ১৩:৪৩:২৭

550
  • শবনম ইয়াসমিন বুবলী। ছবি: সংগৃহীত

২০১৬ সালে ‘বসগিরি’ সিনেমার মাধ্যমে শাকিব খানের বিপরীতে রুপালি পর্দায় অভিষেক হয় শবনম ইয়াসমিন বুবলী। এরপর একই নায়কের সাথে জুটি হয়ে এক ডজন সিনেমায় অভিনয় করেছেন তিনি। এরই মধ্যে তার ১০টি সিনেমা দর্শক উপভোগ করেছেন। প্রথমবার শাকিববিহীন বুবলীর কোনও সিনেমা প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পেতে যাচ্ছে। নতুন সিনেমার মুক্তি, আগামীর পরিকল্পনা ও বর্তমান অবস্থা নিয়ে নিউজজির সঙ্গে কথা বলেছেন তিনি।

নিউজজি: প্রথমবার শাকিব খান ছাড়া প্রেক্ষাগৃহে আসছেন। ‘চোখ’ নিয়ে জানতে চাই-

বুবলী: এটি ভালো গল্পের একটি সিনেমা। করোনার সময় বেশ সীমাবদ্ধতার মধ্যে আমরা সিনেমাটির শুটিং করেছি। এটি পরিচালকেরও প্রথম সিনেমা। সবকিছু মিলিয়ে দর্শকদের ভালোলাগার মতো একটি সিনেমা। বেশ ভালো লাগছে ১৮ মাস পর প্রেক্ষাগৃহে আমার কোনও নতুন সিনেমা মুক্তি পাচ্ছে। সবশেষ গত বছর কাজী হায়াৎ পরিচালিত ‘বীর’ সিনেমাটি মুক্তি পেয়েছিল। প্রত্যাশা করব নতুন স্বাভাবিক অবস্থায় দর্শক সিনেমাটি দেখবেন।

নিউজজি: আপনার বিরুদ্ধে অভিযোগ- ‘চোখ’ সিনেমার প্রচারণায় নাকি আপনাকে পাওয়া যাচ্ছে না?

বুবলী: সিনেমা একটা টিমওয়ার্ক। বর্তমানে সবাই সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে বেশ সরব। আমার অফিসিয়াল ফেসবুক পাতায় বেশ কয়েকদিন ধরেই আমি প্রচারণা করছি। আমার ভেরিফাইড পেজে গেলেই দেখতে পাবেন কী পরিমাণে সিনেমাটি নিয়ে পোস্ট করা হয়েছে। এখন যে সিনেমাগুলোর শুটিং করছি, সেগুলো আগে থেকেই সিডিউল নির্ধারিত ছিল। হঠাৎ করেই ‘চোখ’ মুক্তির পরিকল্পনা করা হয়েছে। সিডিউল জটিলতায় প্রচারণায় কিছুটা ব্যাঘাত ঘটছে। তাছাড়া, দুই দিন আগে দুটি বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেলে তারিখ দেওয়া থাকলেও আমি কাউকে পাইনি। শেষ পর্যন্ত অনুষ্ঠান দুটি বাতিল করতে হয়েছে। সবার কাছে ইন্টারভিউ দিচ্ছি, ‘চোখ’ নিয়ে কথা বলছি। সেখানে প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানের আলাদা পরিকল্পনা থাকলে কেন যাব না। একটা সিনেমার পোস্টার অনেক গুরুত্বপূর্ণ, সেখানে অফিসিয়াল পোস্টার নিয়ে আমার কিছু বলার নেই। এসব তো আমাদের দেখা সম্ভব না।

নিউজজি: শাকিব খানের বাইরে এটা আপনার প্রথম মুক্তিপ্রাপ্ত সিনেমা হতে যাচ্ছে, কতটা চ্যালেঞ্জ মনে করছেন?

বুবলী: যখন যে কাজটি করি, সেটা আমাদের কাছে প্রিয় হয়। বর্তমান সময়টিই আমাদের জন্য চ্যালেঞ্জিং। এখন স্বাভাবিক সময় নেই। করোনার মধ্যে সিনেমায় কাজ করা ও মুক্তি দেওয়াই বড় চ্যালেঞ্জ। শাকিব খানের বাহিরে প্রথম সিনেমা ‘ক্যাসিনো’। তবে, মুক্তির দিক থেকে ‘চোখ’ প্রথম হতে যাচ্ছে। শাকিব খানের সঙ্গে বেশ কয়েকটি সিনেমায় দর্শক আমাকে দেখে অভ্যস্ত। কিন্তু কিছু দর্শক আমাকে অন্য নায়কের সঙ্গেও দেখতে চেয়েছিল। সে কারণে শাকিবের বাইরে গিয়ে কাজটি করা। এখন সিনেমাটির ভালো-মন্দ দর্শক চাহিদার উপর নির্ভর করছে। তারা যেখানেই চাইবেন, সেখানেই কাজ করব।

করোনার মধ্যেও আমরা চেষ্টা করেছি, দর্শকদের একটি ভালো কাজ উপহার দিতে। আমাদের ইন্ডাস্ট্রিতে বাজেট সংকট রয়েছে, যা করোনার দুই বছর সবাই উপলব্ধি করেছি। এর মাঝেও যে প্রযোজকরা সিনেমায় লগ্নি করছে, এটিকে আমি সাধুবাদ জানাই। আর একজন শিল্পী হিসেবে আমি সবার সাথে কাজ করতে চাই। আমি নতুনদের সাথেও কাজ করছি। ভালো নির্মাতা ও গল্প হলে সবার সাথেই কাজ করব। নিজেকে এক জায়গায় সীমাবদ্ধ রাখতে চাই না।

নিউজজি: ‘তালাশ’ সিনেমাটি সম্পর্কে জানতে চাই-

বুবলী: সিনেমাটির পরিচালক সৈকত নাসির। তার সঙ্গে এটি আমার দ্বিতীয় কাজ। তিনি গুণী একজন নির্মাতা এবং আমার পছন্দের একজন পরিচালক। এর আগে  ‘ক্যাসিনো’ সিনেমায় তার নির্দেশনায় কাজ করেছি। সিনেমার শুটিং শেষের পথে। ‘তালাশ’ নভেম্বরের মধ্যে মুক্তি পাবে। এখানে থ্রিলার আছে, সাসপেন্স আছে। আদর আজাদ আর আসিফ দু’জন নায়ক আমার বিপরীতে রয়েছেন। অভিনয়ের প্রতি তাদের আগ্রহটা চমৎকার। কাজও করছেন বেশ ভালো। এছাড়া, আমাদের পুরো টিমই দক্ষ। সিনেমাটিতে নতুন এক বুবলীকে দর্শক দেখতে পাবেন। সিনেমাটি সম্পর্কে  জানতে হলে প্রেক্ষাগৃহে গিয়ে এটি দেখতে হবে। তবে, এতটুকু বলতে পারি- ‘তালাশ’ ভালো গল্পের একটি সিনেমা। অনেকের জীবনের সাথে গল্পটি মিলে যাবে। 

নিউজজি: আরব্য উপন্যাসের গল্পের মতো ‘আলাদিনের চেরাগ’ পেলে সিনেমার উন্নতির জন্য কোন তিনটি ইচ্ছের কথা প্রকাশ করবেন?

বুবলী: প্রথমে সিনেমার জন্য বাজেট চাইতাম। তারপর সিনিয়র-জুনিয়র শিল্পীদের নিয়ে বসতাম- সিনেমার উন্নতির জন্য কীভাবে বাজেটটা সমন্বয় করা যায়। সেটা প্রেক্ষাগৃহ সংস্করণ কিংবা গল্পের প্রয়োজনে হোক। আমাদের এখানে কিন্তু স্ক্রিপ্টের অভাব নেই। কিন্তু প্রায়ই শুনি রাইটারদের এবং গীতিকবিদের নাকি সেভাবে মূল্যায়ন করা হয় না। এমন অবস্থায় একটা ভালো গল্প কিংবা গানের কথা কীভাবে আসবে? এমন সব সমস্যার জন্য ডিপার্টেমেন্ট অনুযায়ী বাজেট ভাগ করে দিতাম, যেভাবে সিনেমার উন্নতি করা করা যায়। পজিটিভভাবে সবাই একত্র হয়ে কাজ করার মানসিকতা তৈরি করলে আমরা আরও অনেক দূর এগিয়ে যাব।

দ্বিতীয়ত চাইতাম, সবার মাঝে যেন সুস্থ কাজের প্রতিযোগিতা থাকে। কারও মধ্যে যেন রেষারেশি না থাকে। কারও পিছনে কথা না বলে যেন সবাই পজেটিভভাবে কাজ  করি- এই মানসিকতা যেন আমাদের মধ্যে থাকে।

আর তৃতীয়ত চাইতাম, বাংলাদেশের সমস্ত ইন্টারনেট বন্ধ হয়ে যাক। বাইরের সঙ্গে সব যোগাযোগ বন্ধ হয়ে যাক, তাহলে সবাই বাংলা সিনেমা দেখবে। বাংলাদেশের সব কিছুর খবর নেবে।

নিউজজি: আপনার স্বপ্নের চরিত্র কী? 

বুবলী: আমাদের মেয়েদের চ্যালেঞ্জের শেষ নেই। সবদিক থেকেই আমাদের নানান বাধা-বিপত্তি আসে। নারীবাদী সিনেমা আমার কাছে ভালো লাগে। পুলিশের চরিত্রে অভিনয় করার ইচ্ছে ছিল, ‘রিভেঞ্জ’ সিনেমায় চরিত্রটি করছি। ‘লিডার: আমিই বাংলাদেশ’ সিনেমায় তিন রকম চরিত্রে দেখা যাবে। নারীকেন্দ্রিক সিনেমায় কাজ করতে চাই।

নিউজজি: ২০১৬ সালে চলচ্চিত্রে পা রেখে সিনেমা নিয়ে অনেক ভাবনা ও প্রত্যাশার কথা বলেছিলেন। ২০২১ সালে এসে সেই প্রত্যাশা পূরণ করতে পেরেছেন?

বুবলী: চলচ্চিত্র নিয়ে সবারই স্বপ্ন থাকে। আমারও অনেক স্বপ্ন। এখন চলচ্চিত্র ঘিরেই আমার সব স্বপ্ন। ইন্ডাস্ট্রি বেশ ভালোভাবেই আগাচ্ছিল। মাঝে বিশ্বব্যাপী মহামারির কারণে সবারই সমস্যা হয়ে যায়। তবে, নতুন স্বাভাবিক অবস্থায় আবারও কাজ শুরু হয়েছে। আমাদের ছোট ইন্ডাস্ট্রি হলেও সবাই কাজ করছেন। কেউ বসে নেই। প্রেক্ষাগৃহ নিয়ে যে সমস্যার কথা রয়েছে, তা পূর্ব থেকেই চলছে। এগুলো আগেও ছিল, এখন আছে এবং আগামীতেও থাকবে। তারপরও আমাদের এটা নেই, ওটা নেই- এসব চিন্তা না করে ইতিবাচক মনোভাব নিয়ে এগিয়ে যেতে হবে।

নিউজজি/রুআ

পাঠকের মন্তব্য

লগইন করুন

ইউজার নেম / ইমেইল
পাসওয়ার্ড
নতুন একাউন্ট রেজিস্ট্রেশন করতে এখানে ক্লিক করুন
        
copyright © 2021 newsg24.com | A G-Series Company
Developed by Creativeers