শনিবার, ২৪ জুলাই ২০২১, ৮ শ্রাবণ ১৪২৮ , ১৩ জিলহজ ১৪৪২

ফিচার

ইন্দোনেশিয়ার জাতির পিতা সংগ্রামী সুকর্ণ

নিউজজি ডেস্ক জুন ২১, ২০২১, ১৫:৩১:৫৪

  • ইন্দোনেশিয়ার জাতির পিতা সংগ্রামী সুকর্ণ

ঢাকা: সুকর্ণ, ইন্দোনেশিয়ার জাতির পিতা।  ইন্দোনেশিয়ার স্বাধীনতার স্থপতি। তিনি ছিলেন ইন্দোনেশিয়ার প্রথম রাষ্ট্রপতি এবং জোট নিরপেক্ষ আন্দোলনের উত্থানকালের প্রধান সারির নেতা। তবে নিজ দেশে তার শাসনামলে তিনি পরিচিত ছিলেন অন্য এক পরিচয়ে, স্বৈরাচারী একনায়ক। এই একনায়ক দীর্ঘকাল ধরে ক্ষমতার কেন্দ্রস্থলে ছিলেন। মর্জিমতো দেশ শাসন করেছেন, সেনাবাহিনীর উপর ভর করে জনমতের তোয়াক্কা না করে নিজেকে ঘৃণিত করেছেন। কিন্তু কোথায় যেন একটা গণ্ডগোল ঠিকই বেঁধে যায়।

১৯০১ সালের ৬ জুন তিনি জন্মগ্রহণ করেন। তিনি যৌবনে হল্যান্ডের দখলদারিত্বের বিরুদ্ধে স্বাধীনতা সংগ্রাম করেছেন। এ জন্যে সুকর্ণকে কারাগারে ও নির্বাসনে থাকতে হয়েছে। ১৯৭০ সালের ২১জুন তিনি মৃত্যুবরণ করেন।

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় জাপান ইন্দোনেশিয়া দখল করে। কিন্তু ১৯৪৫ সালে জাপান পরাজিত হবার পর ইন্দোনেশিয়া থেকে সেনা প্রত্যাহার করে। এ সময় স্বাধীনতাকামীরা জাপানীদের রেখে যাওয়া অস্ত্র ব্যবহার করে এবং সুকর্ণর নেতৃত্বে তারা স্বাধীনতা ঘোষণা করে। স্বাধীনতাকামীরা চার বছর লড়াই করে হল্যান্ডের সেনাদের ইন্দোনেশিয়া থেকে বিতাড়িত করে।

সুকর্ণ ১৯৪৯ সালে দেশের প্রেসিডেন্ট হন। তিনি ইন্দোনেশিয়ায় রাজনৈতিক ও অর্থনৈতিক ক্ষেত্রে অনেক সংস্কার সাধন করেন। সুকর্ণ জোট নিরপেক্ষ আন্দোলনের অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা। পশ্চিমা শক্তিগুলো সুকর্ণর স্বাধীনচেতা মনোভাবকে পছন্দ না করায় ইন্দোনেশিয়ার সেনাবাহিনীকে তার বিরুদ্ধে উশকে দেয়। ১৯৬৫ সালে জেনারেল সুহার্তো এক অভ্যুত্থান ঘটিয়ে সুকর্ণ’র কাছ থেকে সকল ক্ষমতা কেড়ে নেন। দুবছর পর সুকর্ণ পদত্যাগ করতে বাধ্য হন। অসুস্থ সুকর্ণের জন্য পর্যাপ্ত চিকিৎসার ব্যবস্থাও করেনি সুহার্তোর সামরিক সরকার। ফলে দ্রুত স্বাস্থ্য ভেঙে পড়ে সুকর্ণের। ১৯৭০ সালের ২১ জুন জাকার্তার সামরিক হাসপাতালে মৃত্যুবরণ করেন সুকর্ণ।

পর্যাপ্ত চিকিৎসার অভাবে তার কিডনি বিকল হয়ে গিয়েছিল। ভাগ্যের নির্মম পরিহাস, ইন্দোনেশিয়ার স্বাধীনতার নায়ক, যাকে কি না সর্ব সাধারণ জাতির পিতার আসনে বসিয়েছিল, যিনি সকল ক্ষমতা কেন্দ্রে বসে সব কিছু নিয়ন্ত্রণ করেছেন, সেই সুকর্ণই শেষকালে চিকিৎসার অভাবে মৃত্যুবরণ করেছেন। জীবনের শেষ অধ্যায়ে গিয়ে মানুষের মনে খলনায়কের আসন পেয়েছেন, অথচ তিনি ইন্দোনেশিয়ানদের মহানায়ক হয়েই ইতিহাসে অমর হতে পারতেন!

পাঠকের মন্তব্য

লগইন করুন

ইউজার নেম / ইমেইল
পাসওয়ার্ড
নতুন একাউন্ট রেজিস্ট্রেশন করতে এখানে ক্লিক করুন
        
copyright © 2021 newsg24.com | A G-Series Company
Developed by Creativeers