শুক্রবার, ৫ মার্চ ২০২১, ২০ ফাল্গুন ১৪২৭ , ২১ রজব ১৪৪২

অন্যান্য
  >
করোনাভাইরাস

দক্ষিণ এশিয়ায় প্রথম টিকাদান কার্যক্রম শুরু ভারতে

নিউজজি ডেস্ক ১৭ জানুয়ারি , ২০২১, ১২:৪৫:১৬

  • ছবি : ইন্টারনেট থেকে

ঢাকা: ভারতে শুরু হলো নভেল করোনাভাইরাসের ভ্যাকসিন প্রয়োগে বিশ্বের সবচেয়ে বড় কার্যক্রম। গতকাল দেশটির প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এ কার্যক্রমের সূচনা করেন। এ সময় তিনি ভ্যাকসিন নিয়ে যেকোনো গুজব এড়িয়ে চলা ও স্বতঃস্ফূর্তভাবে ভ্যাকসিন গ্রহণের জন্য ভারতবাসীর প্রতি আহ্বান জানান। এ কার্যক্রমের আওতায় ১৩০ কোটি মানুষকে করোনার ভ্যাকসিন প্রয়োগের পরিকল্পনা নিয়েছে ভারত। খবর বিবিসি ও এনডিটিভি।

শনিবার কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী হর্ষবর্ধনের উপস্থিতিতে দিল্লির অল ইন্ডিয়া ইনস্টিটিউট অব মেডিকেল সায়েন্সের পরিচ্ছন্নতা কর্মী মনীশ কুমারের শরীরে ভ্যাকসিন প্রয়োগের মধ্য দিয়ে ভারতে করোনা ভ্যাকসিনের আনুষ্ঠানিক প্রয়োগ শুরু হয়। এ সময় প্রতিষ্ঠানটির পরিচালক রণদীপ গুলেরিয়াও ভ্যাকসিন নেন।

ভারতে প্রথম ভ্যাকসিন নেয়ার পর মণিশ কুমার বলেন, ভ্যাকসিন নিয়ে ভয় পাওয়ার কিছু নেই। আমার পরিবারও শুরুতে ভীত ছিল। তাদের বলেছি, আমার এ টিকার ওপর পূর্ণ বিশ্বাস রয়েছে। এতে তাদের ভয় কেটেছে।

প্রথম দিনে তিন লাখ ভারতীয় করোনা ভ্যাকসিন নিয়েছে বলে জানিয়েছে দেশটির গণমাধ্যম। এর আগেই ব্রিটেনের অক্সফোর্ড ইউনিভার্সিটি ও অ্যাস্ট্রাজেনেকার উদ্ভাবিত ভ্যাকসিন কোভিশিল্ড এবং ভারত বায়োটেক ও ইন্ডিয়ান কাউন্সিল অব মেডিকেল রিসার্চের উদ্ভাবিত কোভ্যাক্সিনের অনুমোদন দিয়েছে ভারত সরকার। এরই মধ্যে দেশটির বিভিন্ন প্রান্তে পৌঁছে দেয়া হয়েছে করোনা ভ্যাকসিন। প্রত্যেককে করোনা ভ্যাকসিনের দুটো ডোজ নিতে হবে।

ভ্যাকসিন কার্যক্রমের সূচনাকালে নরেন্দ্র মোদি বলেন, করোনার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে বিশ্বের সবচেয়ে বড় কার্যক্রম শুরু করেছে ভারত। এর মধ্য দিয়ে বিশ্ববাসী আমাদের সক্ষমতার পরিচয় পাবে।

এ সময় তিনি করোনাযোদ্ধা হিসেবে চিকিৎসক, স্বাস্থ্যকর্মী, আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যসহ সম্মুখসারির যোদ্ধাদের অবদানের কথা স্মরণ করেন। ভারত সরকারের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, করোনার বিরুদ্ধে লড়াইরত সম্মুখসারির যোদ্ধা ও বয়স্করা আগে ভ্যাকসিন পাবেন। পর্যায়ক্রমে ১৩০ কোটি ভারতীয়কে করোনার ভ্যাকসিন দেয়া হবে।

নরেন্দ্র মোদি বলেন, দেশজুড়ে ভ্যাকসিন প্রয়োগের জন্য সব ধরনের প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে। এ বিষয়ে কোনো বিভ্রান্তির অবকাশ নেই। ভ্যাকসিন নিয়ে কোনো গুজবে কান দেবেন না। স্বতঃস্ফূর্তভাবে ভ্যাকসিন নিন। কেননা বিশেষজ্ঞ পর্যায় থেকে ভ্যাকসিন গ্রহণের পরবর্তী নিরাপত্তার বিষয়ে নিশ্চিত হওয়ার পরই তা অনুমোদন দেয়া হয়েছে।

তবে ভ্যাকসিন গ্রহণের পরও সবাইকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে বলেও জানান মোদি। তিনি বলেন, সংক্রমণ এড়াতে মাস্ক পরিধানের বিকল্প নেই। একই সঙ্গে স্বাস্থ্যবিধির অন্যান্য নিয়মও মেনে চলা জরুরি।

গতকাল ভ্যাকসিন নিয়েছেন দিল্লির ম্যাক্স হাসপাতালের নার্স আশুতোষ চতুর্বেদী। ৩১ বছর বয়সী আশুতোষ বলেন, গত এপ্রিল থেকে হাসপাতালের করোনা ইউনিটে একটানা কাজ করছি। এর মধ্যে পরিবারের সান্নিধ্য পেয়েছি সামান্য। ভ্যাকসিন কার্যক্রম শুরুর প্রথম দিনেই তা নিতে পেরে আমি আনন্দিত। কোনো ধরনের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া এখনো দেখা দেয়নি।

উল্লেখ্য, করোনা সংক্রমণের হিসাবে যুক্তরাষ্ট্রের পর বিশ্বের দ্বিতীয় শীর্ষ দেশ ভারত। জনস হপকিনস ইউনিভার্সিটির হালনাগাদ তথ্য অনুযায়ী, গতকাল সন্ধ্যা পর্যন্ত ভারতে করোনা সংক্রমণ শনাক্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১ কোটি ৫ লাখ ৪২ হাজার ৮৪১। এ সময় পর্যন্ত ভারতে করোনা আক্রান্ত হয়ে মারা গেছে ১ লাখ ৫২ হাজার ৯৩ জন। সবচেয়ে বেশি মৃতের সংখ্যায় যুক্তরাষ্ট্র ও ব্রাজিলের পর ভারতের অবস্থান।

পাঠকের মন্তব্য

লগইন করুন

ইউজার নেম / ইমেইল
পাসওয়ার্ড
নতুন একাউন্ট রেজিস্ট্রেশন করতে এখানে ক্লিক করুন
copyright © 2021 newsg24.com | A G-Series Company
Developed by Creativeers