বুধবার, ২১ এপ্রিল ২০২১, ৭ বৈশাখ ১৪২৮ , ৯ রমজান ১৪৪২

খেলা

২০২৩ পর্যন্ত ঘরোয়া ক্রিকেট ক্যালেন্ডার তৈরি করছে বিসিবি

স্পোর্টস রিপোর্টার মার্চ ৩, ২০২১, ২১:৩৯:৪৭

  • বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের সিইও নিজামউদ্দিন চৌধুরী সুজন।ছবি-ইন্টারনেট

আইসিসির চলমান ফিউচার ট্যুর প্রোগ্রাম (এফটিপি) এর মেয়াদ আগামী ২০২৩ সাল পর্যন্ত। করোনার কারণে বাংলাদেশের ঘরোয়া ক্রিকেট বাধাগ্রস্থ হয়েছে।

সে কারণেই আইসিসির এফটিপি অনুসরন করে ২০২৩ পর্যন্ত ঘরোয়া ক্রিকেট ক্যালেন্ডার তৈরি করছে বিসিবি।

গণমাধ্যমকে বিসিবি সিইও নিজামউদ্দিন চৌধুরী সুজন এ তথ্য দিয়েছেন-'যেহেতু আমাদের এফটিপি ২০২৩ সাল পর্যন্ত একটা কনসার্ন করা আছে সেটাকে মাথায় রেখে আমাদে ঘরোয়া লিগের জন্যও ২০২৩ সাল পর্যন্ত একটা ক্যালেন্ডার তৈরি করা হবে। বিশেষ করে মূল যে টুর্নামেন্টগুলো আছে ঢাকা প্রিমিয়ার লিগ, বিপিএল, জাতীয় লিগ সহ অন্যান্য যে প্রতিযোগিতাগুলো আছে সে টুর্নামেন্টগুলোর একটা সূচি নির্ধারণ করার জন্য আমরা কাজ করছি। এ ব্যাপারে প্রক্রিয়াগত কিছু ব্যাপার সংশ্লিষ্ট কমিটি থেকে সুপারিশ আসার পরই আমরা প্রকাশ করতে পারবো বোর্ডের অনুমোদন সাপেক্ষে।'

গত বছরের ১৬ মার্চের পর করোণাভাইরাসের সংক্রমন ঝুঁকিতে ঘরোয়া ক্রিকেট স্থগিত হয়ে গেছে। ঘরোয়া ক্রিকেট দ্রুত ফিরিয়ে আনার উদ্যোগ নিয়েছে বিসিবি। এক রাউন্ড শেষে স্থগিত থাকা ঢাকা প্রিমিয়ার ডিভিশন ক্রিকেট লিগ দিয়ে ঘরোয়া ক্রিকেট ফিরিয়ে আনছে না বিসিবি। জাতীয় ক্রিকেট লিগ দিয়ে ফেরানো হচ্ছে ঘরোয়া ক্রিকেটকে। এমনটাই জানিয়েছেন তিনি-'  প্রাথমিকভাবে আমাদের চেষ্টা থাকবে যত দ্রুত সম্ভব ঘরোয়া ক্রিকেটকে ফিরিয়ে নিয়ে আসা। এই মুহূর্তে যে গ্যাপগুলো আছে তাতে লঙ্গার ভার্সন দিয়েই হয়তো আমরা শুরু করবো। পরবর্তীতে ঢাকা প্রিমিয়ার লিগ পরিচালনার পরিকল্পনা রয়েছে।বর্তমানে আমাদের একটা সিরিজ চলছে ইমার্জিং দলের সাথে। সে ক্ষেত্রে এই সিরিজের পরপরই আমরা চেষ্টা করবো ঘরোয়া ক্রিকেটকে ফিরিয়ে আনার।'

করোনার কারণে বাধাগ্রস্থ হয়নি বিপিএল। বিপিএলের পরবর্তী আসরের স্লট খুঁজে বের করা হচ্ছে বলেও জানিয়েছেন তিনি-' বিপিএলের পরবর্তী আসরের জন্য আমরা একটা স্লট বের করে রেখেছি। বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিলের অনুমোদন সাপেক্ষে আমরা এটা প্রকাশ করবো।'

ঘরোয়া ক্রিকেট ফিরিয়ে আনার আগে সকল ক্রিকেটারকে করোনা ভ্যাকসিন দেয়ার পক্ষে অবস্থান বিসিবির। জাতীয় ক্রীড়া পরিষদ (এনএসসি) এবং যুবও ক্রীড়া মন্ত্রনালয়ের সঙ্গে এ ব্যাপারে সমন্বয়টা জরুরী বলে মনে করছেন তিনি-'ভ্যাকসিনের জন্য তালিকা ইতোমধ্যে জাতীয় ক্রীড়া পরিষদে পাঠানো হয়েছে। ইনফরমেশন পেয়েছি এটা প্রক্রিয়াধীন। এরপর সরকারের সংশ্লিষ্ট মন্ত্রনালয় ও স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সাথে সামঞ্জস্য করে যত দ্রুত সম্ভব আমরা চেষ্টা করবো খেলোয়াড়, সাপোর্ট স্টাফ ও গ্রাউন্ডসম্যানদের ভ্যাকসিনের আওতায় নিয়ে আসতে।'

পাঠকের মন্তব্য

লগইন করুন

ইউজার নেম / ইমেইল
পাসওয়ার্ড
নতুন একাউন্ট রেজিস্ট্রেশন করতে এখানে ক্লিক করুন
copyright © 2021 newsg24.com | A G-Series Company
Developed by Creativeers