বৃহস্পতিবার, ২৯ জুলাই ২০২১, ১৩ শ্রাবণ ১৪২৮ , ১৮ জিলহজ ১৪৪২

খেলা

সাইফউদ্দিন-শান্ত'র পারফরমেন্সে শেষ হাসি মুশফিকুরের

স্পোর্টস রিপোর্টার জুন ২১, ২০২১, ১৮:২৭:৩৭

  • আবাহনীকে জিতিয়ে ম্যাচ সেরার পুরষ্কার ম্যাচ রেফারি শওকতুর রহমান চিনুর কাছ থেকে নিচ্ছেন শান্ত।ছবি-বিসিবি

গাজী গ্রুপ : ১৩০/১০ (২০.০ ওভারে)

আবাহনী : ১৩১/৯ (১৯.৫ ওভারে)

ফল : আবাহনী ১ উইকেটে জয়ী।

টার্গেট ১৩১ খুব কঠিন কিছু নয়। তারপরও এই টার্গেট পাড়ি দিতে এসে দুই অফ স্পিনার মাহমুদউল্লাহ (২/১৯),শেখ মেহেদীর (২/২২) বোলিংয়ে আবাহনীর নাভিশ্বাস উঠিয়ে ছেড়েছে গাজী গ্রুপ। ১ বল হাতে রেখে ১ উইকেটে জিতেছে আবাহনী।

 শেষ দিকে এসে পেন্ডুলামের কাঁটার মতো দুলেছে ম্যাচটি। ২৪ বলে আবাহনীর টার্গেট যখন ৪৮, তখন ম্যাচটি পুরোপুরি হেলে পড়েছিল আবাহনীর দিকে। ১১তম ওভারে মুশফিক (১২),মোসাদ্দেককে (২) উইকেটের পেছনে ক্যাচ দিতে বাধ্য করে ম্যাচটা গাজী গ্রুপের দিকে নিয়ে এসেছিলেন মুগ্ধ।

গাজী গ্রুপের এই পেসারই শেষ দিকে এসে হয়েছেন খলনায়ক। স্লগে তার ২টি ওভারে ৫টি ওয়াইড ডেলিভারিই গাজী গ্রুপের হাত থেকে আবাহনীর হাতে ম্যাচটা চলে গেছে। ১৭তম ওভারে শান্ত'র হাতে খেয়েছেন মুগ্ধ ২টি ছক্কা।

সেই ওভারে খরচা তার ২২টি রান।১৮ বলে আবাহনীর টার্গেট যখন ২৭, তখন ম্যাচটির উত্তেজনা ফিরিয়ে এনেছিলেন গাজী গ্রুপ অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ। শান্ত'র হাতে ছক্কা খেয়ে আফিফ (১৪)এবং সাইফউদ্দিনকে (০) ফিরিয়ে দিলে ১২ বলে আবাহনীর সামনে টার্গেট দাঁড়ায় ১৮।  ১৯তম ওভারে ওয়াইড ইয়র্কারের উপর্যুপরি চেষ্টায় ৩টি দিয়েছেন ওয়াইড ডেলিভারি। প্রথম ওয়াইডের সিদ্ধান্ত আম্পায়ার তানভীর দিলে মাহমুদউল্লাহ তা মেনে নিতে পারেননি। সিদ্ধান্তের প্রতিবাদ জানিয়েছেন। সেই ওভারে এঙ্গেল ডেলিভারীতে শান্তকে বোল্ড আউট করে (৪৯ বলে ৪ চার,২ ছক্কায় ৫৮) ম্যাচে ফিরিয়ে এনেছিলেন উত্তেজনা

।শেষ ৬ বলে ৯ রানের লক্ষ্যটা সহজ করে দিয়েছেন গাজী গ্রুপ ফিল্ডার মেহেদী হাসান। বাজে ফিল্ডিংয়ে ১ রানকে বাউন্ডারি উপহার দিয়েছেন তিনি মেহেদী হাসান রানাকে। শেষ ২ বলে ২রানের টার্গেট পাড়ি দিতে শেষ বল পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হয়নি। শেষ ওভারের ৫ম বলে কভারে  খেলে তানজিব হাসান সাকিব ২ রান নিলে শ্বাসরুদ্ধর ম্যাচের পরিসমাপ্তি হয়।

এই ম্যাচে দারুণ বল করেছেন আবাহনীর পেসার সাইফউদ্দিন (৪-০-১৮-৪)। স্লগে তার ২ ওভারের শেষ স্পেলটা (২-০-৯-৩) ছিল এক কথায় প্রশংসিত। ১৮তম ওভারে মুমিনুলের হাতে প্রথম ৫ বলে মার খেয়ে ১৯রান খরচার পর  শেষ বলে সেই মুমিনুলকে ফিরিয়ে দিয়ে (১২ বলে ৫ চার এ ২৫) হাততালি পেয়েছেন আবাহনী পেসার মেহেদী হাসান রানা (৪-০-৩২-৩)। সৌম্য সেট হয়ে থেমেছেন ৩০ রানে (২৪ বলে ২ চার,২ ছক্কা)। জাকির হাসান করেছেন ২৫ বলে ২৭। মাহমুদউল্লাহও ইনিংসটাকে বড় করতে পারেনি (১৭ বলে ১৬)। টপ অর্ডারদের ব্যর্থতায় স্লগে পড়েছে চাপ। শেষ ৩০ বলে ৩৬ রান যোগ করতে গাজী গ্রুপ হারিয়েছে ৫ উইকেট।

জবাব দিতে এসে শুরু থেকেই চাপের মুখে পড়েছে আবাহনী। ব্যাটিং পাওয়ার প্লে-র ৬ ওভারে ৩২/২ স্কোর ফেলে দিয়েছে আবাহনীকে চাপে। লিটন ১৭ বলে ২২ রানে থামলে হঠাৎ এক দমকা হাওয়ায় স্কোর শিটে ৬০ থেকে ৬৪-এই ৪ রানে মুশফিক,মোসাদ্দেক,নাইম শেখকে হারায় আবাহনী। তবে সাইফউদ্দিনের বোলিং কৃতিত্বের দিনটি ম্লান হতে দেননি শান্ত এবং টেল এন্ডাররা। 

এই ম্যাচ জিতে পয়েন্ট তালিকায় শীর্ষে উঠে এলো আবাহনী (১৩ ম্যাচে ২০ পয়েন্ট)। গাজী গ্রুপের সংগ্রহ সেখানে ১২ ম্যাচে ১৪ পয়েন্ট।

পাঠকের মন্তব্য

লগইন করুন

ইউজার নেম / ইমেইল
পাসওয়ার্ড
নতুন একাউন্ট রেজিস্ট্রেশন করতে এখানে ক্লিক করুন
        
copyright © 2021 newsg24.com | A G-Series Company
Developed by Creativeers