মঙ্গলবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১২ আশ্বিন ১৪২৮ , ১৯ সফর ১৪৪৩

খেলা

মেসির রেকর্ড ছোঁয়ার দিনে কোয়ার্টার ফাইনালে আর্জেন্টিনা

ক্রীড়া ডেস্ক জুন ২২, ২০২১, ০৮:২২:১৭

409
  • ছবি: ইন্টারনেট

মঙ্গলবার বাংলাদেশ সময় ভোরে কোপা আমেরিকায় প্যারাগুয়ের বিপক্ষে খেলতে নামার সঙ্গে সঙ্গে লিওনেল মেসি ছুঁয়েছেন জাতীয় দলের হয়ে সর্বোচ্চ ম্যাচ খেলার রেকর্ড। এমন দিনে তাকে নিরাশ করেনি সতীর্থরা। ঠিকই দারুণ এক জয় তুলে নিয়ে এ টুর্নামেন্টের কোয়ার্টার ফাইনালে উঠে গেছে দুইবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়নরা। 

ব্রাসিলিয়ার মানে গারিঞ্চা স্টেডিয়ামে ‘এ’ গ্রুপের ম্যাচে ১-০ গোলে জিতেছে আর্জেন্টিনা। এ জয়ে দলটির হয়ে গোল করেন আলেহান্দ্রো গোমেস। 

এখন পর্যন্ত ৩ ম্যাচে দুই জয় ও এক ড্রয়ে মোট ৭ পয়েন্ট নিয়ে 'এ' গ্রুপের শীর্ষস্থান ধরে রাখল আর্জেন্টিনা। পাঁচ দলের গ্রুপে ৪টি করে ম্যাচ খেলবে প্রতিটি দল। দুটি গ্রুপ থেকে ৪টি করে দল নাম লেখাবে কোয়ার্টার ফাইনালে।

এতদিন আর্জেন্টিনার হয়ে সর্বোচ্চ ১৪৭ ম্যাচ খেলার রেকর্ডটি একার করে রেখেছিলেন সাবেক ডিফেন্সিভ মিডফিল্ডার হাভিয়ের মাচেরানো। আজকের ম্যাচটি দিয়ে তার রেকর্ডে ভাগ বসালেন মেসি।

মঙ্গলবার উরুগুয়ের বিপক্ষে ম্যাচের মূল একাদশে মোট ছয়টি পরিবর্তন এনে ৪-৩-৩ ছকে দল সাজান আর্জেন্টিনা কোচ স্কালোনি। রক্ষণে নিকোলাস ওতামেন্দি ও মার্কাস আকুনোর জায়গায় জার্মান পেজ্জেলা ও নিকোলাস ত্যাগলিয়াফিকোকে নামান তিনি। মাঝমাঠে লিয়ান্দ্রো পারেদেস ও উইংয়ে পাপু গোমেজ ডাক পান। আর্জেন্টিনার মূল একাদশে এ ম্যাচ দিয়েই অভিষেক ঘটল সেভিয়া উইঙ্গারের। আক্রমণে মেসির পাশে ডাক পান সার্জিও আগুয়েরো ও অ্যাঙ্গেল ডি মারিয়া। তার সুফল পেতে খুব একটা দেরি হয়নি আর্জেন্টিনার। ম্যাচের ১০ম মিনিটেই অভিষিক্ত আলেহান্দ্রো গোমেস দুই বারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়নদের এগিয়ে। এ গোলে অবশ্য ডি মারিয়ার অবদানই বেশি। ডান প্রান্ত থেকে দারুণ এক পাস দেন তিনি। ফিনিশিংটা অবশ্য দুর্দান্ত ছিল গোমেসের।

প্যারাগুয়ের বিপক্ষে শুরু থেকেই দারুণ খেলছিলেন মেসি। তবে এ তারকা ম্যাচের ১৮তম মিনিটে প্রথম গোল করার সুযোগ পেয়েছিলেন। কিন্তু সে সময় ফ্রি কিকটা ঠিকমতো নিতে পারেননি তিনি। এদিকে ধীরে ধীরে নিজেদের গুছিয়ে নিয়ে পাল্টা আক্রমণে যায় প্যারাগুয়ে। তবে গোলরক্ষক এমিলিয়ানো মার্তিনেসের তেমন কোনো পরীক্ষা নিতে পারেনি তারা।

বিরতির আগে ডি মারিয়ার শট ঝাঁপিয়ে ঠেকান তিনি। কিন্তু বিপদমুক্ত করতে পারেননি। গোমেসের ক্রস ঠেকাতে গিয়ে উল্টো নিজেদের জালে পাঠিয়ে দেন জুনিয়র আলনসো। কিন্তু অফসাইডের জন্য গোল পায়নি আর্জেন্টিনা।

বিরতির পর সমতায় ফিরতে মরিয়া হয়ে ওঠে প্যারাগুয়ে। যে কারণে তারা প্রচুর চাপ তৈরি করে আর্জেন্টিনার রক্ষণে। এক পর্যায়ে টানা চারটি কর্নার পায় প্যারাগুয়ে। কিন্তু একবারও মার্তিনেসের পরীক্ষা নিতে পারেনি তারা। ফরোয়ার্ডদের ব্যর্থতায় আর্জেন্টিনার রক্ষণে গিয়ে খেই হারায় তাদের প্রায় সব আক্রমণ।

প্রতি আক্রমণে ভীতি ছড়াতে পারেনি আর্জেন্টিনা। জাল অক্ষত রেখে কোয়ার্টার-ফাইনাল নিশ্চিত করার দিকেই ছিল তাদের সব মনোযোগ। শেষ পর্যন্ত এ কৌশলেই সফল হয়েছে তারা। সঙ্গে সঙ্গে কোয়ার্টারে জায়গা করে নিয়েছে দলটি। 

নিউজজি/সিআর

পাঠকের মন্তব্য

লগইন করুন

ইউজার নেম / ইমেইল
পাসওয়ার্ড
নতুন একাউন্ট রেজিস্ট্রেশন করতে এখানে ক্লিক করুন
        
copyright © 2021 newsg24.com | A G-Series Company
Developed by Creativeers