মঙ্গলবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১২ আশ্বিন ১৪২৮ , ১৯ সফর ১৪৪৩

বিদেশ

উইঘুরে মুসলিম নির্যাতনের দলিল প্রকাশ করেছে এ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল

নিউজজি ডেস্ক ২১ জুন , ২০২১, ১৫:২৮:৩৭

86
  • ছবি: ইন্টারনেট

ঢাকা: ২০১৭ সাল থেকে চীনা সরকার জিনজিয়াংয়ের স্বায়ত্তশাসিত অঞ্চল উইঘুরে মুসলিমদের উপর যে অমানবিক রাষ্ট্রীয় নিপীড়ন চালাচ্ছে তার একটি দলিল প্রকাশ করেছে অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল। ১৬০ পৃষ্ঠার এই দলিলটি তারা অনলাইনে ডাউনলোডের জন্য দিয়েছেন।  ২০১৯ সালের শেষের দিক থেকে ২০২১ সালের মাঝামাঝি সময়ে এ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল প্রত্যক্ষ অভিজ্ঞতার ভিত্তিতে এবং ভুক্তভোগীদের সাক্ষাৎকার গ্রহণ করে এই দলিলটি প্রকাশ করেছে। দলিলটি ইংরেজী, ইন্দোনেশিয়ান, চীনা, ফ্রেঞ্চ, স্প্যানিশ সহ আরো কয়েকটি ভাষায় প্রকাশ করা হয়েছে। চলতি মাসের ১০জুন এটি সর্বসাধারণের জন্য উন্মুক্ত করা হয়।

শুধু সাক্ষাৎকার নয় বিভিন্ন গোপন সরকারি দলিল দস্তাবেজ এবং স্যাটেলাইটের ছবি থেকেও তথ্য সংগ্রহ করে অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল এই তথ্য উপাত্তগুলি একত্রিত করেছে। তাদের মতে চীনা সরকার এখনও একইভাবে নির্যাতন চালিয়ে যাচ্ছে। অসংখ্য নারী ও পুরুষ কে তারা ক্যাম্পে অথবা জেলে বন্দি করে রেখেছে এবং পুরো এলাকাটিই একটি কারাগারে পরিণত করা হয়েছে। যারা কোনমতে চীনের বাইরে পালিয়ে বিদেশে আশ্রয় নিয়েছেন তারাও পরিবারের লোকজনের সাথে যোগাযোগ করতে ব্যর্থ হচ্ছেন।

এই দলিলে ৬০ জন মানুষের নির্যাতনের নিশ্চিত প্রমাণ সন্নিবেশিত করা হয়েছে এবং এর বাহিরেও অসংখ্য নির্যাতন ও অমানবিক আচরণের বিস্তারিত বিবরণ সন্নিবেশিত হয়েছে। এই সমস্ত অত্যাচার-নিপীড়ন ধামাচাপা দেয়ার জন্য সরকারের অসংখ্য মিথ্যাচার এবং অপপ্রচারের দলিলও প্রকাশ করা হয়েছে। অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল তাদের সাইটে একটি পিটিশন রেখেছেন যেখানে স্বাক্ষর করে প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং এর কাছে অবিলম্বে নির্বিচারে আটক করা মুসলিমদেরকে মুক্ত করার জন্য আবেদন জানানোর আহ্বান তারা রেখেছেন। বিশ্বব্যাপী বিবেকবান মানুষের কাছে এটি ছড়িয়ে দেয়ার জন্যও তারা অনুরোধ করেছেন।

তাদের মতে ২০১৭ সাল থেকে প্রায় ১ মিলিয়ন (১০ লক্ষ) বা তারও বেশি মানুষকে বন্দী করে রাখা হয়েছে জিনজিয়াং প্রদেশের উইঘুর অঞ্চলে। এর পরিমাণ দিন দিন বাড়ছে এবং চীনা কমিউনিস্ট পার্টি জঙ্গিবাদ, মুসলিম উগ্রতাবাদ ইত্যাদি জুজুর ভয় দেখিয়ে বাস্তবে জোরপূর্বক এক জাতি এবং এক সংস্কৃতি তৈরীর একটি উদ্ভট এবং হাস্যকর অপচেষ্টা হিসাবেই নির্যাতন চালিয়ে যাচ্ছে উইঘুর মুসলিম সম্প্রদায়ের উপর যেখানে তারা স্পষ্টতই নিজেদের সংস্কৃতি ধর্ম এবং জাতীয়তাবোধ রক্ষা করতে বদ্ধপরিকর।

নিউজজি/এস দত্ত

পাঠকের মন্তব্য

লগইন করুন

ইউজার নেম / ইমেইল
পাসওয়ার্ড
নতুন একাউন্ট রেজিস্ট্রেশন করতে এখানে ক্লিক করুন
        
copyright © 2021 newsg24.com | A G-Series Company
Developed by Creativeers