রবিবার, ২৬ মে ২০২৪, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ , ১৮ জিলকদ ১৪৪৫

বিদেশ

ইসরায়েলে ইরানের হামলার প্রভাবে ক্রিপ্টোতে ব্যাপক দরপতন

নিউজজি ডেস্ক ১৭ এপ্রিল , ২০২৪, ১৫:২৫:১২

55
  • ছবি-ইন্টারনেট

ঢাকা: বর্তমান সময়ের সবচেয়ে জনপ্রিয় ক্রিপ্টোকারেন্সির দর ব্যাপকভাবে কমছে। ইসরায়েলে ইরানের হামলার দিন অর্থাৎ শনিবার (১৩ এপ্রিল) থেকে গত ৫ দিনে বিটকয়েনের দাম কমেছে ৫ হাজার ডলার। ইসরায়েলে হামলা ও বিটকয়েন হালভিংয়ের প্রভাবে দাম কমছে বলে মনে করছেন বিশ্লেষকরা। সিএনবিসি সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

তথ্য অনুযায়ী, শনিবার (১৩ শনিবার) রাতে তেহরান ইসরায়েলের দিকে ৩০০টিরও বেশি ড্রোন ও ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ করেছে। সেদিন প্রতিটি বিটকয়েনের দাম ছিল ৬৮ হাজার ডলার। আজ এই রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত সময়ে যেটির দর কমে দাঁড়িয়েছে ৬৩ হাজার ৮০০ ডলারে। ক্রিপ্টোর প্রধান মুদ্রা বিটকয়েন ছাড়াও দর কমেছে ইথেরিয়াম ও বিএনবির।

ইসরায়েলে ইরানের হামলার দিন প্রতিটি ইথেরিয়ামের দাম ছিল ৩ হাজার ৩০০ ডলার। হামলার পরের দিন অর্থাৎ ১৪ এপ্রিল এই কয়েনটির দাম কমে ২ হাজার ৮০০ ডলারে নেমে যায়। এরপর ইথেরিয়ামের দর কিছুটা বেড়ে আজ লেনদেন চলছে ৩ হাজার ডলারে। অপরদিকে গত শনিবার বিএনবি’র দাম ছিলো ৬০০ ডলার। হামলার পরের দিনই এর দাম কমে ৫০০ ডলারে ঠেকে। তবে এরপরে দাম কিছুটা বেড়ে ৫৩৯ ডলারে লেনদেন চলছে।

এদিকে আগামী ২ দিন পরেই বিটকয়েন হালভিং অনুষ্ঠিত হবে। এই হালভিং ইভেন্ট প্রতি চার বছর পর পর অনুষ্ঠিত হয়। হালভিং প্রক্রিয়ার আগে এবং পরের একমাস ক্রিপ্টোকারেন্সির দরপতন হয়।

তথ্য মতে, ২০১২ সালে সর্বপ্রথম বিটকয়েন হালভিং হয়েছিল। তখন বিটকয়েন মাইনিংয়ের প্রতিটি ব্লকের জন্য পুরস্কার ৫০ বিটকয়েন থেকে কমিয়ে ২৫ বিটকয়েন করা হয়। এরপর দ্বিতীয় হালভিং হয় ২০১৬ সালে। এসময় প্রতিটি ব্লকের জন্য পুরস্কার আরও কমিয়ে সাড়ে ১২ বিটকয়েন করা হয়। ২০২০ সালের মে মাসে যা আরও কমে মাত্র ৬ দশমিক ২৫ বিটকয়েনে নেমে আসে।

বিশ্লেষকরা মনে করছেন, চলতি এপ্রিল মাসে অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া হালভিংয়ে পুরস্কার আরও কমে প্রতি ব্লকে ৩ দশমিক ১২ বিটকয়েনে নেমে আসবে।

সর্বপ্রথম বিটকয়েন হালভিং প্রক্রিয়া সম্পন্ন হয় ২০১২ সালে। হালভিংয়ের পরের মাসে বিটকয়েনের ৯ শতাংশ দর বৃদ্ধি পায়। তবে পরের বছর অর্থাৎ ২০১৩ সালে বিটকয়েনের দার বেড়েছিলো ৮ হাজার ৮৩৯ শতাংশ।

দ্বিতীয়বার হালভিং প্রক্রিয়া সম্পন্ন হয় ২০১৬ সালে। এর পরের মাসে বিটকয়েনের দাম কমেছিল ১০ শতাংশ। তবে ২০১৭ সালে ২৮৫ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়ে প্রথমবারের মতো প্রতিটি বিটকয়েন ২০ হাজার ডলারে উঠেছিল। এছাড়া, ২০২০ সালের বিটকয়েন হালভিংয়ের পরের মাসে ৬ শতাংশ এবং পরের বছর ৫৪৮ শতাংশ বৃদ্ধি পায়।

নিউজজি/এস দত্ত/নাসি 

পাঠকের মন্তব্য

লগইন করুন

ইউজার নেম / ইমেইল
পাসওয়ার্ড
নতুন একাউন্ট রেজিস্ট্রেশন করতে এখানে ক্লিক করুন